1. admin@dailybhorerbangladesh.com : admin : Shah Alam
শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:২৪ অপরাহ্ন

কমরেড আজাহারুল ইসলাম আরজুর শোক ও স্মরণে তাঁর স্বপ্নের শোষণ মুক্ত সমাজ বিনির্মানের প্রত্যয়

Reporter Name
  • আপডেট টাইম সোমবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩
  • ৭৭ ভিউ টাইম

মাহবুবুল আলম,মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি:
“নয়নের সম্মুখে তুমি নাই, নয়নের মাঝখানে নিয়েছো যে ঠাই” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে মানিকগঞ্জের গণমানুষের নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরেড আজাহারুল ইসলাম আরজু এর শোক ও স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রবিবার সকালে সাংস্কৃতিক বিপ্লবী সংঘ সাবিস মিলনায়তনে সকাল থেকে দিনব্যাপী শোক ও স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

শোক ও স্মরণ সভায় বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি সিপিবি মানিকগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি অধ্যাপক আবুল ইসলাম সিকদার এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড মুজিবুর রহমান মাস্টার এর সঞ্চালনায় শোক প্রস্তাব পাঠ করেন কমরেড নজরুল ইসলাম।
শোক ও স্মরণ সভায় স্মৃতিচারণ করেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরেড মো.শাহ আলম, সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, গণফোরাম কেন্দ্রীয় নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ মফিজুল ইসলাম খান কামাল,মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডভোকেট গোলাম মহিউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম, মানিকগঞ্জ পৌর মেয়র মো.রমজান আলী,বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরেড মিজানুর রহমান হযরত, মুক্তিযুদ্ধের ন্যাপ কমিউনিস্ট ছাত্র ইউনিয়ন গেরিলা বাহিনীর যুদ্ধকালীন কমান্ডার মো.আওলাদ হোসেন, মানিকগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মমিন উদ্দিন খান, কৃষক সমিতির জেলা সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরেড সংকর প্রসাদ ভৌমিক, ক্ষেতমজুর সমিতির জেলা সাধারণ সম্পাদক কমরেড আব্দুল মান্নান, সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর আলম বিশ্বাস ও আব্দুল মোমিন প্রমুখ।
জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বলেন তাকে নিয়ে আমরা একটা স্মারক গ্রন্থ প্রকাশ করতে চাই এবং ব্যায়ভার আমি বহন করবো। পৌর মেয়র বলেন তাঁর নামে পৌরসভায় একটা রাস্তার নামকরণ করতে চাই।
বক্তারা আরো বলেন কমরেড আরজু দেশের সর্বোচ্চ ডিগ্রি নিয়ে মেহনতী মানুষের জন্য জীবনকে উৎসর্গ করেছেন। তিনি মহান মুক্তিযুদ্ধ অসামান্য অবদান রেখে মুক্তিযুদ্ধের অসাম্প্রদায়িক শোষণ মুক্ত চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে সমাজের আমুল পরিবর্তনের জন্য আজীবন লড়াই সংগ্রাম করে গেছেন। তিনি তার নিজ বাড়িতে স্কুল এন্ড কলেজে প্রতিষ্ঠাসহ জেলার অসংখ্য স্কু কলেজ নির্মাণে অবদান রেখেছেন। এছাড়াও তিনি ধলেশ্বরী নদী খনন, নয়াকান্দি বাঁধ খনন,পামরি পোকা দমন,ভূমিহীনদের খাস জমির আন্দোলনসহ অসংখ্য আন্দোলন সংগ্রামে সামনের সারিতে ছিলেন।
তাঁর মৃত্যু আমাদেরকে অপরাধী করে এবং তার আদর্শের পথচলাকে আরো বেগবান করতে হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবোর

Categories